Breaking News

আপেলের থেকেও বেশি উপকারি পেয়ারা, জেনেনিন পেয়ারার দারুন উপকারিতা

হ্যালো বন্ধুরা কেমন আছেন? আমার বিশ্বাস আপনি ভিতর থেকে সুস্থ আছেন। আজকে আমরা যে ফলটি নিয়েআলোচনা করতে যাচ্ছি। সেটার সঙ্গে আমরা সকলেই পরিচিত। হ্যাঁ আজকে আমরা আলোচনা করতে যাচ্ছি পিয়ারার উপকারিতা নিয়ে। পিয়ারা এমন একটা ফল যা আমরা খুব সহজেই এখানে সেখানে দেখতে পায়। অনেকেরই বাড়িতে পিয়ারা গাছ থাকে। তবে আপনি কি জানেন একটি পিয়ারা একটি আপেলের থেকেও অনেক বেশি উপকারি। শুধু তাই নয় এই পিয়ারার অনেক উপকারিতা আছে যা জানলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন। তো প্রতিবেদনটি বেশি লম্বা না বাড়িয়ে চলুন শুরু করা যাক-

পেয়ারা সবুজ, লাল পেয়ারা পাওয়া যায়। প্রায় ১০০ টির বেশি প্রজাতির পেয়ারা আছে। ধারণা করা হয় ১৭শ শতাব্দীতে পেয়ারা ভারত বর্ষে আসে। একটি পেয়ারার খাদ্য গুণ কমলার ৪ গুণ বেশি। পেয়ারার মধ্যে যেসকল খাদ্য গুণ রয়েছে পানি, শক্তি, প্রোটিন, আশ, ফসফরাস, সোডিয়াম, ভিটামিন, ম্যাঙ্গানিজ, সেলিনিয়াম, ভিটামিন বি-১, বি-২, বি-৩, খনিজ, সেচুরেটেড ফ্যাটি এসিড। পেয়ারা ফলই শুধু উপকারী তা নয় পেয়ারা পাতায়ও অনেক গুণ রয়েছে।

পেয়ারা পাতার রস ক্যান্সার প্রতিরোধী, সংক্রমণ রোধ করে। এছাড়া প্রদাহ, ব্যথা, জ্বর, বহুমূত্র, আমাশয় প্রভৃতি রোগে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। স্বাদ, পুষ্টিগুণ আর স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রাখলে পেয়ারা খেলে প্রচুর লাভ। স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় পেয়ারা রাখা যেতে পারে। দেশী ফলগুলোর মধ্যে পেয়ারা বেশ পরিচিত এবং জনপ্রিয় একটি ফল। সাধারণ এবং সহজলভ্য এই ফলটির পুষ্টিগুণ অনেক। পেয়ারা ভর্তা, পেয়ারা জেলী নানভাবে খাওয়া যায় মজাদার এই ফলটি। শুধু ফল নয়, পেয়ারা পাতায়ও রয়েছে নানা পুষ্টিগুণ। আজ আমরা জেনে নিই পেয়ারার কয়েকটি পুষ্টিগুণ অথবা পেয়ারার উপকারিতা –

১. রক্ত পরিষ্কার করে:

দেহের রক্ত পরিষ্কার করার জন্য পেয়ারা দারুন কাজে আসে। পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ভিটামিন সি ও লাইকোপিন রয়েছে৷ এর ফলে রক্ত পরিষ্কার হয় ও ত্বক অনেক বেশি উজ্জ্বল হয়৷ এছাড়াও লাইকোপিনের সাহায্যে গালে গোলাপী আভা ফুটে ওঠে।

২. নিয়ন্ত্রণে রাখে ডা’য়া’বেটি’স

ডা’য়াবে’টি’সে আক্রান্তদের জন্য পেয়ারা দারুণ উপকারী। পেয়ারার ফাইবার দেহে চিনি শোষণের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। পেয়ারার রসে থাকা উপাদান ডা’য়াবে’টিস মেলা’ইটা’সের চিকিৎসায় খুবই কার্যকর। ডা’য়াবে’টিস প্রতিরোধে পেয়ারা পাতাও বেশ কার্যকর। পেয়ারাতে প্রচুর ফাইবার এবং কম গ্লাইসেমিক ইনডেক্স থাকার কারণে এটি খেলে রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে থাকে আর তাই ডা’য়াবে’টিস হওয়ার ঝুকি কিছুটা কম থাকে।

৩. দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধিতে:

দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধিতে পেয়ারা অসাধারণ কাজ করে। চোখের সমস্যা হলে ডাক্তারেরা অনেক সময় পেয়ারা খাওয়ার পরামশ্য দেন। ভিটামিন এ চোখের জন্য উপকারী। এতে থাকা ভিটামিন এ কর্নিয়াকে সুস্থ রাখে এবং রাতকানা রোগ প্রতিরোধ করে। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় পেয়ারা রাখুন। কাঁচা পেয়ারা ভিটামিন এ এর ভাল উৎস।

৪. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে:

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে পিয়ারার জুড়ি মেলা ভার। পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি রয়েছে। যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে এবং শরীরকে বিভিন্ন রোগের সাথে যুদ্ধ করার শক্তি প্রদান করে।

এছাড়াও পেয়ারা আরো অনেক রকম উপকার পাওয়া যায়। শুধু পেয়ারা নয়।পিয়ারা পাতা ও আমাদের অনেক উপকারে আসে দাঁতের সমস্যার জন্য পিয়ারা পাতার রস দারুন কাজ করে। তো এখনকার মত এই পর্যন্তুই। দেখা হবে পরের প্রতিবেদনে। ততক্ষনের জন্য ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন।

Check Also

খেলা হবে গানে তুমুল নাচলেন পবন্দীপ অরুনিতা ,ঝড়ের গতিতে ভাইরাল ভিডিও

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিদিন বিভিন্ন ধরনের ভিডিও আমরা ভাইরাল হতে দেখি। সারাদিনের বেশ খানিকটা সময় আমরা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *