Breaking News

বিশ্বের পাঁচ দ্রুত গতির বোলার, যাদের ভ’য় করতো তাবড় ব্যাটসম্যানরা

হ্যালো বন্ধুরা আমাদের আজেকর এই প্রতিবেদনটি তে আপনাকে স্বাগত জানাই। আজকে আমরা জানতে চলেছি বিশ্বের এমন কিছু তাবর বলার যাদের বলের স্পিড কে রকেটের সাথে তুলনা করা হয়ে থাকে। তো চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক আজকের প্রতিবেদন-

ক্রিকেট ইতিহাসে এমন কয়েকজন বোলার রয়েছেন যাদের গতি রকেটের সাথে তুলনা করা হতো। যদিও প্রাক্তন ক্রিকেটাররা বিশ্বাস করেন যে অতীতে আধুনিক গতি মাপার যন্ত্র ছিল না, নাহলে এখনকার বোলারদের বলগুলির গতির চেয়ে অনেক বেশি ছিল। তবে আপনি কি জানেন সবচেয়ে দ্রুত গতির বোলিংয়ের রেকর্ড টি কার নামে আছে? চলুন বিস্তারিত ভাবে জেনে নেওয়া যাক।

৫. থমসন জেফ:

আজকে তালিকার পাঁচ নাম্বার স্থানে যিনি থাকছেন তিনি হলেন জেফ থমসন। তার ক্রিকেট ক্যারিয়ারের সময়, বোলারদের কাছে আধুনিক গতি মাপার যন্ত্র ছিল না, তাই তাদের রেকর্ডটি প্রায়শই বিতর্কিত হয়। থমসন ১৯৭৬ সালে একটি প্রস্তুতি ম্যাচে ঘণ্টায় প্রতি ১৬০.৬০ কিলোমিটার গতিতে বল ছুড়েছিলেন। থমসনের সমসাময়িকরা দাবি করেছেন যে তাঁর বল শোয়েব আখতার এবং ব্রেট লির চেয়েও দ্রুত ছিল।

৪. ব্রেট লি:

এক সময় ভারতে এসে আই পি এল কাঁপাতেন এই বলার। নাম ব্রেট লি। মাথায় একটা লাল রঙের ফিতে বেঁধে ছুটে আসতেন ঝড়ের গতিতে।বিশ্বের দ্রুতগতির বোলিংয়ের তালিকায় অস্ট্রেলিয়ার এই ফাস্ট বোলার দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন। ২০০৫ সালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি ওডিআই ম্যাচে নেপিয়ারে ঘন্টায় প্রতি ১৬১.১০ কিলোমিটার গতিতে বল ছুড়েছিলেন।

৩. শন টেইট:

এনার বল অনেকটা মালিঙ্গা স্টাইলে ছিল। লম্বা স্টেপে বল করতেন রকেট গতিতে। অস্ট্রেলিয়ার এই দীর্ঘদেহী ফাস্ট বোলার বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতির বোলিংয়ের তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছেন। ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি ওডিআই ম্যাচে ঘণ্টায় প্রতি ১৬১.১০ কিলোমিটার গতিতে বল করেছিলেন।

২. স্টাক:

মিচেল স্টাক অস্ট্রেলিয়ান বলার। একসময় আর সি বি তে সমানে ঝরের গতিতে বল করতেন। চোটের জন্য অনেক সময় তাকে মাঠের বাইরে থাকতে হয়েছে।বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ার সেরা বোলার হলেন মিচেল স্টার্ক। তার দুর্দান্ত ইয়র্কার অপর প্রান্তে থাকা ব্যাটসম্যানেদের হিমশিম খেতে হয়। ২০১৫ সালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে একটি টেস্ট ম্যাচ চলাকালীন তিনি তার জীবনের সবচেয়ে দ্রুত ডেলিভারি করেছিলেন। এই বলটির গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় প্রতি ১৬০.৪০ কিলোমিটার।

১. সোয়েব আক্তার:

ক্রিকেটের ইতিহাসে দ্রুততম বোলিংয়ের রেকর্ডটি পাকিস্তানের ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতারের নামে রয়েছে, এইজন্য তাকে রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেসের নামেও ডাকা হয়। ২০০৩ সালে আইসিসি বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে কেপটাউনে ঘন্টায় প্রতি ১৬১.৩০ কিমি গতিবেগে বল করে ইতিহাস গড়েন। ১৭ বছর ধরে কোনও বোলার এই রেকর্ডটি ভাঙতে পারেনি

Check Also

ওডিআই ক্রিকেট ইতিহাসে পাঁচটি সর্বোচ্চ দলীয় রান দেখুন

বরাবরই আমাদের দেশে ক্রিকেটকে উৎসব হিসাবে দেখা হয়। পাড়ার গলির ক্রিকেট ম্যাচ হোক বা স্টেডিয়ামের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *