ঘরের ভিতরে বসে ছিল গৃহবধূ, হটাৎই তেড়ে এসে ছোবল মারল বিষধর কোবরা, ভিডিও ভাইরাল

0
466

আজকের দিনে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম একটি এমন জায়গা যেখানে পৃথিবীর অদ্ভুত অদ্ভুত আশ্চর্য জিনিস পত্র আমরা দেখতে পেয়ে যাই নিমেষের মধ্যে। সোশ্যাল মিডিয়াকে কাজে লাগিয়ে অনেক মানুষ তার সুপ্ত প্রতিভা কে বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে পারেন।

আমাদের দেশে এমন বহু প্রতিভার রয়েছে যারা উপযুক্ত সুযোগ সুবিধার অভাবে অঙ্কুরেই বিনষ্ট হয়ে যান। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে সেই সমস্যা আজকে দূর হয়েছে।

সাপ দেখলে ভয় পান না, এমন মানুষ খুঁজে বের করা দুষ্কর। আর সাপের বহর যদি হয় বড়, আর থলিতে থাকে বিষ, তাহলে তো কথাই নেই। তেমনি একটি সাপের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলে দিয়েছে।

যেখানে দেখা গেছে একটি বাড়ির বাগানের মধ্যে একটি বিষাক্ত সাপ পাওয়া গেছে। সেই সাপের ভিডিও দেখে নেটিজেনরা ভাষাহীন হয়ে পড়েছে।

দেখা যায় ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করার জন্য একটি লোক ওখানে যায়। এটি MIRZA MD ARIF নামের ইউটিউব চ্যানেলে এই ভিডিওটি রয়েছে। আর যে সাপটি কে উদ্ধার করছে এটা তারই ইউটিউব চ্যানেল।

সাপটিকে দেখতে পাওয়া যায় একটি বাড়ির পুরো বাগানের এক কোনায়। ওখানে সাপটি পুরো গুটিয়ে ছিল আর অনেক রেগেও ছিল সাপটি সেটা দেখেই বোঝা যাচ্ছে। সাপটিকে দেখতে পুরোই হালকা সোনালী রংয়ের। আর সাপটিকে যেই বের করতে যাওয়া হয় ও তখনই ছবোল মারার চেষ্টা করে। সাপটি এমন জায়গায় ঢুকে ছিল যেখান থেকে ওকে বের করাটা খুবই মুশকিল। কিন্তু তাও লোকটি একদিক দিয়ে খোঁচা মেরে সাপটিকে বের করতে যায় আর তখনই সাপটি লাফিয়ে আরো ভেতরে ঢুকে যায়। যাদের বাড়িতে এই সাপটি ঢুকেছিল তারাও এমনকি দাঁড়িয়ে দেখছিল সেই সাপটিকে বের করা। আর সাপটি রীতিমতো এতটাই রেগে ফুঁসছিল যার আওয়াজ পর্যন্ত ভিডিও তে আসছে।

আর তারপরে সেই লোকটি যাহোক করে সাপটিকে বের করে নিয়ে আসে একটি লোহার রডে করে। সাপটির মুখের কাছে সেই লোহার রডটা করে একটা একটা কাপড়ের ব্যাগ জড়িয়ে মুরে ধরা হয় আর সেটার মধ্যেও সাপটা খুব জোরে আক্রমণ করতে যায়। এতটাই জোরে ছোবল মারতে যায় যেটা আপনারা নিজের চোখে দেখলে বেশি মজা পাবেন। তারপরে ওই ব্যগটাকে কামড়ে ধরে সাপটা তারমানে ভাবুনতো সাপটা কতটা রেগে রয়েছে যখন তখনো ও কাউকে আক্রমণ করতে পারে। সাপটা যখন রেগে যাচ্ছে তখন ওর পুরো শরীরটাই ফুলে উঠছে। এই সাপটা অনেকটা রে”গে গিয়ে প্রে”সার কুকারের সিটি পড়ার মতোন আওয়াজ বের করে। তার মানে অনেকটা প্রেসার কুকারের সিটি পড়ার সময় যে আওয়াজটা হয় সেটাই শুনতে লাগে।

এই সাপটা যদি কাউকে কা”মড়ায় তখন অনেক সময় তার বি”ষটা ভেতরে যায় না কিন্তু যদি এই সাপটির বি”ষ একবার শরীরে ঢুকে যায় তাহলে যে কেউই শেষ। আর সেই বিষ একবার ঢুকে গেলে দশ থেকে পনেরো দিন লাগবে একটা মানুষের সুস্থ হতে। আর মোটামুটি ৯০ দিন মতন রেস্ট নিতে হবে। এই সাপটির মধ্যে “হেমো”ট”ক্সিক” বি”ষ হয়। এই সাপ যদি কোন জীব জন্তু কে খায় তাকে খেয়ে সে পেটের ভেতরে পচিয়ে রাখে।সাপটি কিন্তু দেখতে অনেকটাই ছোট কিন্তু ততটাই ভ”য়ানক। এইসাপকে যদি কেউ একবার দেখে নেয় তাহলে ও লুকিয়ে যায় কারণ এইসাপ লুকিয়ে থাকতেই বেশি পছন্দ করে।

এমনকি যাদের বাড়িতে এই সাপটি ছিল তাদের বাড়ির একজন মহিলা কেউ এই সাপটি পায়ে ছো”বল মেরেছে। আর এইসব এর নাম হচ্ছে ‘রাসল সাপ’। অনেক সময় এরকম হয় এই সাপ কাম”ড়ানোর পর সঙ্গে সঙ্গে বোঝা যায়না সেখানটা চু”লকাতে শুরু করে আর তার পরেই বোঝা যায়। আর সেই মহিলা যেহেতু সঙ্গে সঙ্গে হসপিটালে গিয়েছিল তার ফলেই সে সুস্থ আছে। আর তারপরে সাপটাকে ব্যাগের ভেতর ঢুকিয়ে নেয় লোকটা। এই ভ”য়ঙ্কর সাপের ভিডিওটিকে এখন অব্দি ৪.৪ লক্ষেরও বেশি মানুষ দেখে ফেলেছে। আর লা”ইক করেছে ১৪ হাজার দর্শকরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here