“প্লাস্টার করা পায়ের নামে কিছু দে দে বাবা”, মমতাকে বেনজিরভাবে কটাক্ষ দিলীপের

0
93

একুশে বাংলা বিধানসভা নির্বাচন ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। আগামী ১৭ এপ্রিল রয়েছে পঞ্চম দফার নির্বাচন। ইতিমধ্যেই নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসাবে রাজ্যের প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দল পূর্ণ উদ্যমে ভোট প্রচার করতে মাঠে নেমে পড়েছে।

এরইমধ্যে তৃণমূল ও বিজেপি নেতাদের বাকবিতণ্ডায় রীতিমতো সরগরম হয়ে রয়েছে গোটা বঙ্গ রাজনীতি। একে অপরের প্রতি আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে অভিযোগ ও পাল্টা অভিযোগ করতে দেখা যাচ্ছে তৃণমূল ও বিজেপি নেতা নেত্রীদের।

এবার বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের জনসভা উপস্থিত থেকে বেনোজির ভাবে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ব্যাপক কটাক্ষ করলেন।

সম্প্রতি কিছুদিন আগে নির্বাচন শুরুর সময় তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নন্দীগ্রামে প্রচার করতে গিয়ে পায়ে আঘাত পেয়েছিলেন। তাকে নন্দীগ্রাম থেকে গ্রিন করিডোর করে কলকাতা এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। তারপর তার পায়ে প্লাস্টার করে ব্যান্ডেজ করা হয়েছিল।

তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পায়ে প্লাস্টার নিয়ে হুইল চেয়ারে করে রাজ্যের জেলায় জেলায় গিয়ে প্রচারে ঝড় তুলেছিলেন। এবার মুখ্যমন্ত্রীর পায়ে চোট পাওয়া প্রসঙ্গ নিয়ে কটাক্ষ করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

তিনি গত রবিবার বরাহনগরে বিজেপি প্রার্থীদের সমর্থনে একটি জনসভায় গিয়ে বললেন, “সাদা শাড়ির দিন গেছে, সাদা দাড়ির দিন এসে গেছে।” এক কথায় তিনি বলতে চেয়েছেন এবারের নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জিততে পারবে না এবং বাংলায় ক্ষমতায় আসবে নরেন্দ্র মোদি।

দিলীপ ঘোষ এদিন আরো বলেন, “আপনিও জানেন আপনার মুখ দেখতে চায় না। বাংলার মানুষ আপনাকে আর ভরসা করে না। তাই আপনি পায়ে প্লাস্টার করে পা দেখিয়ে মায়েদের বলছেন আমাকে একটা ভোট দিন।

রাস্তায় ঘুরে বেড়ায়। ভগবানের নামে কুছ দে দে বাবা। আল্লাহকে নাম পে কুছ দে দে বাবা শোনা যেত আগে। এখন শোনা যায় প্লাস্টার করা পায়ের নাম পে কুছ দে দে বাবা।

এই চালাকিটা লাইন নিয়ে আর চলবে না। এবার বাংলায় সাদা দাড়ি শাসন করতে আসবে।” এক কথায় বললে বলা যেতে পারে, দিলীপ ঘোষ এদিন ভরা জনসভা থেকে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভিখারীর সাথে তুলনা করে ব্যাপক কটাক্ষ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here