দাদুকে চোখে দেখতে পায়নি! প্রয়াত দাদুর ছবি জড়িয়ে ধরে চুমু খাচ্ছে ছোট্ট ইউভান, ভাইরাল ভিডিও

0
228

সোশ্যাল মিডিয়ার আরো দুটি নাম আছে যথা নেট দুনিয়া এবং নেট মাধ্যম। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা ঘরে বসেই সিনেমা থেকে শুরু করে খেলাধুলা নিমিষেই উপভোগ করতে পারি। এই সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমরা বিভিন্ন দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার পূর্বাভাস বা বন্যা,

ভারী বৃষ্টিপাত সম্পর্কিত তথ্য নিমিষেই জেনে যেতে পারি। এছাড়া এই নেট দুনিয়া আছে বলেই কোনো প্রতিভা একেবারে শুরুতেই শেষ হয়ে যায় না। প্রতিভাবান ব্যক্তিরা এই নেট দুনিয়াতে নিজেদের প্রতিভার ভিডিও আপলোড করেন এবং সেই ভিডিওটি নেটিজেনদের মধ্যে ভাইরাল হলে ওই প্রতিভাবান ব্যক্তি রাতারাতি স্টার হয়ে যান।

সোশ্যাল মিডিয়া হলো এমন একটি প্ল্যাটফরম যেখানে যে কোন মুহূর্তে যে কোন কিছু ভাইরাল হয়ে যেতে পারে। আপনি আগে থেকে হয়তো জানতে পারবেন না কোন ভিডিও হঠাৎ করে ভাইরাল হয়ে গেল।এই ভাইরাল তালিকায় থাকে নাচ এবং গানের ভিডিও।

তার সঙ্গেই থাকে ছোটদের বিভিন্ন কাণ্ডকারখানা এবং বিভিন্ন মজার মজার ঘটনার ভিডিও। এছাড়াও কিছু কিছু ভিডিও থাকে পশু পাখির ভিডিও। কিন্তু কিছু কিছু ভিডিও আমাকে ভাবতে বাধ্য করে। কয়েকটি ভিডিও আমাদের একেবারে হতচকিত করে দেয়।সোশ্যাল মিডিয়া বর্তমানে এমন একটি পথ আমাদের জন্য খুলে দিয়েছে,

যার মাধ্যমে আমরা নিজেদের প্রতিভা তুলে ধরতে পারি পৃথিবীর কাছে।গত বছরের আগস্ট মাসে নিজের বাবাকে হারিয়েছিলেন ব্যারাকপুর এর বিধায়ক এবং পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। তার কিছুদিন পরই চক্রবর্তী পরিবারে আসে এক মিষ্টি সদস্য রাজপুত্তুর ইউভান।

কিন্তু দাদু তার নাতিকে দেখে যেতে পারেননি। এই আক্ষেপ রাজ চক্রবর্তীর সারা জীবন থেকে যাবে। নিজের চোখে না দেখলেও ‘দাদা’-র প্রতি অমোঘ টান ইউভানের। শনিবার সকাল বেলায় রাজ চক্রবর্তীর এই পোস্ট করা ইনস্টাগ্রাম ভিডিও নিমেষে ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সোফায় বসে তার নরম এবং ছোট আঙ্গুল দিয়ে ঠাকুরদাকে চেনার চেষ্টা করছে ইউভান। মাকে ঠাকুরদার ছবি দেখিয়ে খিলখিলিয়ে হেসে উঠছে। বারবার অগোছালোভাবে বলে উঠছে ‘দাদা’।

মা শুভশ্রীও তাকে দাদাকে চুম্বন করার নির্দেশ দিচ্ছে। আর সরল শিশু ইউভান মায়ের নির্দেশ বদ্ধপরিকর ভাবে পালন করছে। ইউভানের যেন তার দাদার সঙ্গে বহুদিনের পরিচিতি, কত না বলা গল্প জমে আছে বলার জন্য।এই পোস্টের ক্যাপশন আপনাকে আরও আবেগঘন করে তুলবে। রাজ চক্রবর্তী লেখেন, ” ভাগ্যের পরিহাস, একই বছরে একজনকে হারাই তো আরেকজনকে পাই। আমার ছেলে হয়তো বাবাকে কোনদিনও স্বচক্ষে দেখে নি এবং বাবাও তার নাতিকে কোনদিনও দেখে যাওয়ার সুযোগ পাননি। তবুও আমি জানি, কোনো না কোনোভাবে ওরা একে অপরকে প্রচন্ড মিস করে।” ইউভানের প্রতিটি ছোট ছোট পদক্ষেপ সোশ্যাল মিডিয়ায় বন্দি করে রাখেন তারকা দম্পতি। আজকের পোস্ট করা এই ভিডিওতে নিশ্চয়ই চোখ ভিজেছে সকল নেটিজেনদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here